রুনা লায়লাকে চমকে দিলেন বাপ্পী লাহিড়ী

0
43

বিনোদন ডেস্ক:

রুনা লায়লা। উপমহাদেশের বরেণ্য সঙ্গীতশিল্পী তিনি। অগণিত কালজয়ী গানের এ গায়িকার গত ১৭ নভেম্বর ছিলে জন্মদিন। দিনটিতে বড় কোন আয়োজন রাখেন নি এ তারকা। তবে এ দিন চমকে যাওয়ার মতো ঘটনা ঘটালেন ভারতের কিংবদন্তী সঙ্গীতশিল্পী, সঙ্গীত পরিচালক বাপ্পী লাহিড়ী।

এ দিন রুনা লায়লাকে কলকাতার গ্র্যান্ড ওবেরয় হোটেলে সরাসরি গিয়ে শুভেচ্ছা জানালেন বাপ্পী লাহিড়ী। জন্মদিনের সকালে হোটেলে স্ত্রীকে সঙ্গে নিয়ে উপস্থিত বাপ্পি। ফুলেল শুভেচ্ছা জানিয়ে কেক কাটেন। এসময় রুনা লায়লার সঙ্গে তার স্বামী আলমগীরও উপস্থিত ছিলেন। বাপ্পী লাহিড়ীর হঠাৎ উপস্থিতিতে ভীষণ উচ্ছ্বসিত হন রুনা লায়লা। তার জন্মদিনের আনন্দকে এবার যেন আরো বাড়িয়েই দিলেন বাপ্পী লাহিড়ী।

রুনা লায়লা বলেন, ‘বাপ্পী লাহিড়ীর সঙ্গে আমার পরিচয় অনেক আগে থেকেই। তারসঙ্গে সম্পর্কটা আমার পারিবারিক। জন্মদিনের রেশ কাটতে না কাটতেই বাপ্পী লাহিড়ীর এমন উপস্থিতি জন্মদিনের আনন্দ আরো অনেকটাই বাড়িয়ে দিয়েছে। অনেকটা সময় আমরা একসঙ্গে গল্প করেছি, আড্ডা দিয়েছি।’

গত ১৬ নভেম্বর সন্ধ্যায় রুনা লায়লা কলকাতা যান। সেখানে তিনি তার এক আত্মীয়র বিয়েতে যোগ দেবার পাশাপাশি জন্মদিন উদযাপন করছেন। সোমবার রুনা লায়লা ঢাকায় ফিরবেন।

এদিকে জি বাংলার সারেগামা অনুষ্ঠানে গত শনিবার রাতের পর্বে উপস্থিত ছিলেন। সেখানে অঙ্কিতা ও রাহুলের গানে মুগ্ধ হন। শুধু তাই নয় অঙ্কিতাকে দিয়ে বাপ্পী লাহিড়ী গান গাওয়ানোরও প্রতিশ্রুতি করেন।

বাপ্পী লাহিড়ী বলেন, ‘অঙ্কিতা কলকাতার শাকিরা। তার গান আমাকে এতোটাই মুগ্ধ করেছে যে আমি তাকে নিয়ে গান করার পুরো পরিকল্পনা করে ফেলেছি। বাকিটা সময়ের ব্যাপার। আশা করি শিগগিরই শ্রোতা দর্শকরা কোন সুখবর পাবেন।’

বাপ্পি লাহিড়ীর সঙ্গে রুনা লায়লার সম্পর্ক সেই আশির দশক থেকে। সেই সময় প্রকাশিত অ্যালবাম ‘সুপার রুনা’র সূত্র ধরেই তাদের পরিচয়। পরে হয় বন্ধুত্ব। যা এখন পারিবারিক সম্পর্ক হিসেবেই দাঁড়িয়েছে। রুনা লায়লার মেয়ের সঙ্গে বাপ্পি লাহিড়ীর মেয়েরও দারুণ বন্ধুত্ব।

১৯৬৫ সালের জুন মাসে উর্দু ছবি ‘জুগনু’তে গান গেয়েছিলেন রুনা লায়লা।ক্যারিয়ারে প্রায় দশ হাজারের মতো গানের গায়িকা তিনি। ছয়বার পেয়েছেন জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার। পেয়েছেন স্বাধীনতা পদকও। বাংলা, হিন্দি, উর্দু, পাঞ্জাবি, সিন্ধি, গুজরাটি, পশতু, বেলুচি, আরবি, পারসিয়ান, মালয়, নেপালি, জাপানি, ইতালিয়ান, স্প্যানিশ, ফ্রেঞ্চ ও ইংরেজি সব ভাষাতেই গান গেয়েছেন রুনা লায়রা।