আইফোনের ব্যাটারি শেষ হলেও চিন্তা নেই

0
10

আমার কাগজ প্রতিবেদক :

ফোনে কথা বলতে বলতে ব্যাটারি শেষ হয়ে গেছে, কী করতেন আগে? ফোনটা খুলেই অন্য ব্যাটারি লাগিয়ে আবারো কথা বলা শুরু করতেন। সেদিন তো গেছে। এখন বেশিরভাগ ব্র্যান্ডের ফোনের সাথেই ব্যাটারি এমনভাবে সংযুক্ত থাকে, যে সেটা খোলা যায় না। বিশ্বখ্যাত প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান অ্যাপলের আইফোনও তার ব্যতিক্রম নয়। কিন্তু এবার অ্যাপলই নাকি আনতে যাচ্ছে ব্যাটারির চার্জ বাড়ানোর ডিভাইস। এই ডিভাইসটি আইফোনের সাথে চুম্বকের মতো লেগে থাকবে এবং ব্যাটারি চার্জ দেবে কোনো তার ছাড়াই। ব্যবহার করার পাশাপাশি চার্জ হতে থাকবে ব্যাটারি।

আইফোন নির্মাতা প্রতিষ্ঠান অ্যাপল এ ধরনের ব্যাটারির জন্য ওয়্যারলেস চার্জের ডিভাইস তৈরির চেষ্টা করছে ১ বছর ধরে। আইফোন টুয়েলভের পেছনে একটি ডিভাইস বসানোর পরিকল্পনা করছে অ্যাপল। মেগাসেফ প্রযুক্তি ব্যবহার করা এই ডিভাইস নতুন আইফোনগুলো যখন ওয়্যারলেস চার্জিং প্যাড বা অন্য কোন ডিভাইসে বসানো হয়, সেভাবেই বসানো হবে।

সংবাদ মাধ্যম ব্লুমবার্গ বলছে, আইফোন টুয়েলভের জন্য তৈরি নতুন এই ডিভাইসটি চলতি বছরের অক্টোবর বাজারে আসার কথা রয়েছে। কিন্তু সফটওয়্যার ইস্যু নিয়ে তৈরি হয়েছে নানা জটিলতা। কারণ আইফোনের সেই ডিভাইসটি নাকি অতিরিক্ত গরম হয়ে যাচ্ছে। ভালো মানের গ্রাহকবান্ধব ডিভাইস বাজারে আনতে চেষ্টা করছে অ্যাপল। এজন্য আরো বেশি সময় লাগতে পারে বলেও জানায় টেক জায়ান্ট।

তবে এ বিষয়ে অ্যাপল খুব বেশি কিছু গণমাধ্যমকে জানাচ্ছে না। আইফোন এক্সের ক্ষেত্রে অ্যাপল স্মার্ট ব্যাটারি তৈরি করেছে। তবে আইফোন টুয়েলভের ম্যাগনেটিক ব্যাটারি অতোটা জনপ্রিয় হবে না বলে মনে করছেন প্রযুক্তি বিশেষজ্ঞরা। পোর্টেবল ব্যাটারি তাদের সুবিধা দেবে, যারা আইফোন টুয়েলভে ফাইভ জি নেটওয়ার্ক ব্যবহার করেন। ম্যাগসেফ ব্যাটারি যদি জনপ্রিয় হয়, তাহলে অ্যাপলের আয় আরো বাড়বে। ২০২০ সালের শেষ নাগাদ অ্যাপলের স্মার্ট অ্যাক্সেসরিজের বিক্রি হয়েছে ১ হাজার ৩শ’ কোটি ডলারের। যা কোম্পানির মোট বিক্রির ১১ শতাংশ।

আপনার কমেন্ট এখানে পোস্ট করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here