খাবারের দাম বাড়িয়ে বেশি বিক্রির ‘অফার’ ফুডপান্ডার!

0
11

করোনার সময়ে ক্রেতার অভাবে বন্ধ হয়ে গেছে অনেক রেস্টুরেন্ট। যে কয়েকটি রেস্টুরেন্ট এখন ব্যবসা করছে তাদের অধিকাংশই অনলাইন অর্ডারনির্ভর। ক্রেতাদের আকৃষ্ট করতে নানা রকম অফার দিচ্ছে অনলাইন ফুড ডেলিভারি প্রতিষ্ঠানগুলো।

অনলাইনে খাবার বেশি অর্ডার হলে রেস্টুরেন্ট যেমন লাভবান হয় তেমনি লাভের অংশীদার হয় ডেলিভারি প্রতিষ্ঠানগুলো। এই লাভের হার বাড়ানোর জন্য খাবারের দাম বাড়িয়ে ডিসকাউন্টের অফার দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে অনলাইন ফুড ডেলিভারি প্রতিষ্ঠান ‘ফুডপান্ডা’র বিরুদ্ধে।

মঙ্গলবার দুপুর থেকেই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে রাজধানীর ধানমন্ডির হার্ট ওয়ার্ল্ড রেস্টুরেন্টের এক পোস্ট নিয়ে চলছে সমালোচনা।

ফুডপান্ডা থেকে ওই রেস্টুরেন্টকে খাবারের বর্তমান দাম ২০% বাড়িয়ে ২০% ডিসকাউন্ট দেওয়ার প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে বলে দাবি করা হয়েছে ওই পোস্টে। একই সঙ্গে খাবার অর্ডার এবং ডেলিভারির জন্য কমিশন ২০% থেকে বাড়িয়ে ২৮% করার প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে।

এ প্রসঙ্গে হার্ট ওয়ার্ল্ডের প্রতিষ্ঠাতা ও স্বত্বাধিকারী তাহসিন রব বলেন, ‘২০১৮ সাল থেকে আমরা ফুডপান্ডার সঙ্গে কাজ করছি। দীর্ঘদিন থেকে তাদের ২০% কমিশন দিয়ে গ্রাহকদের খাবার সরবরাহ করছি। কিন্তু গত ১৩ জুলাই ই-মেইলের মাধ্যমে ফুডপান্ডা আমাকে জানায় এই কমিশন ২০% থেকে বাড়িয়ে ২৮% দিতে হবে। এছাড়া অর্ডার যেন বেশি পাই এ জন্য আমার রেস্টুরেন্টের খাবারের বর্তমান দাম ২০% বাড়িয়ে দিতে হবে। যেন ফুডপান্ডা তাদের ওয়েবসাইটে গ্রাহকদের ওই সব খাবারের উপর ২০% ডিসকাউন্ট দিতে পারে।’

তিনি আরো বলেন, ‘আমি ফুডপান্ডার এই ই-মেইলের কোন উত্তর দেইনি। এমন অনৈতিক কাজের সঙ্গে জড়িয়ে আমার রেস্টুরেন্টের দীর্ঘদিনের সুনাম নষ্ট করতে পারি না। সবাইকে বিষয়টি পরিষ্কার করার জন্য আমাদের পেজে পোস্ট দিয়ে বিস্তারিত জানিয়েছি। ’

তিনি আরো বলেন, ‘ফুডপান্ডার প্রযুক্তিগত সমস্যার কারণে তাদের ওয়েবসাইটের সার্চে সবসময় আমার রেস্টুরেন্ট খুঁজে পাওয়া যেত না। এ কারণে আমাকে নানা রকম বিড়ম্বনার শিকার হতে হয়েছে। চলতি মাস থেকে আমরা আর ফুডপান্ডার সঙ্গে থাকছি না। খাবারের দাম বাড়িয়ে ডিসকাউন্ট দেওয়ার অফার ফুডপান্ডা আমার মত আরো অনেক রেস্টুরেন্ট মালিককে দিয়েছে বলে শুনেছি।’

ফেসবুকে ভাইরাল হওয়ার পোস্টটি মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৮টা পর্যন্ত দেড় হাজার শেয়ার হয়েছে। যেখানে ফুডপান্ডা নিয়ে বিরূপ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছেন সহস্রাধিক ব্যবহারকারী।

হার্ট ওয়ার্ল্ড রেস্টুরেন্টের এমন অভিযোগের ভিত্তিতে ফুডপান্ডা গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছে, ভোজনরসিক গ্রাহকদের সর্বোচ্চ সেবা দেওয়ার জন্য আমরা সবসময় কাজ করছি। ফুডপান্ডা দেশের আট হাজার রেস্টুরেন্টের খাবার অনলাইন অর্ডারের মাধ্যমে গ্রাহকের কাছে পৌঁছে দিচ্ছে। এই অর্ডারের পরিমাণ বাড়লে রেস্টুরেন্ট এবং ফুডপান্ডা উভয়েই লাভবান হয়। সম্প্রতি ঢাকার একটি রেস্টুরেন্ট ফুডপান্ডার বিরুদ্ধে যে অভিযোগ তুলেছে তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। কোন ধরনের ‘মিস কমিউনিকেশন’ এর কারণে এমনটা হয়ে থাকতে পারে।

উল্লেখ্য, ২০১৩ সালে ফুডপান্ডা বাংলাদেশে যাত্রা শুরু করে। বাংলাদেশ ছাড়া ভারত, আর্জেন্টিনা, ব্রাজিল, চিলি, রাশিয়াসহ বিশ্বের ৫০টি দেশে সেবা দিচ্ছে ফুডপান্ডা।

আপনার কমেন্ট এখানে পোস্ট করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here