চট্টগ্রামে ১৩ লাখ শিশু পাবে ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল

এবার চট্টগ্রামে মোট ১৩ লাখ ২০ হাজার ৭৮৫ শিশুকে ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে। এর মধ্যে চট্টগ্রাম নগরের ৫ লাখ ৩৩ হাজার ৫৫২ ও জেলার ১৫ উপজেলায় ৭ লাখ ৮৭ হাজার ২৩৩ শিশু রয়েছে।

রোববার (৪ অক্টোবর) থেকে ১৭ অক্টোবর পর্যন্ত ৬ থেকে ৫৯ মাস বয়সী শিশুদের জাতীয় ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন-২০২০-এর আওতায় ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে।

চট্টগ্রামের জেলা সিভিল সার্জন ডা. সেখ ফজলে রাব্বি এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল অপুষ্টিজনিত অন্ধত্ব থেকে শিশুদের রক্ষা করে। শিশুর রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করে, ডায়রিয়ার ব্যাপ্তিকাল ও জটিলতা কমায় এবং শিশুমৃত্যুর ঝুঁকি কমায় বলেও তিনি জানান।

জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, ৬ থেকে ১১ মাস বয়সী মোট এক লাখ ৭০ হাজার ২১৯ শিশুকে একটি করে নীল রঙের এবং ১২ থেকে ৫৯ মাস বয়সী ১১ লাখ ৫০ হাজার ৫২০ শিশুকে একটি করে লাল রঙের ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে।

ডা. শেখ ফজলে রাব্বি জানান, জেলার ১৫টি উপজেলায় এবার মোট ৭ লাখ ৮৭ হাজার ২৩৩ শিশুকে ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে। এর মধ্যে ৬ থেকে ১১ মাস বয়সী ৮৮ হাজার ৭১৩ শিশুকে একটি করে নীল রঙের ও ১২ থেকে ৫৯ মাস বয়সী ৬ লাখ ৯৮ হাজার ৫২০ জন শিশুকে একটি করে লাল রঙের ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে।

সব উপজেলায় ক্যাপসুল পাঠিয়ে দেয়া হয়েছে। স্বাস্থ্যবিধি মেনে এ কর্মসূচি পালন করা হবে বলেও জানান তিনি।

জেলার ১৫ উপজেলার ২০০টি ইউনিয়নের ৬০০টি ওয়ার্ডে, ১৫টি স্থায়ী কেন্দ্র, ১৫টি অস্থায়ী কেন্দ্র এবং ৪ হাজার ৮০০টি অস্থায়ী কেন্দ্রে ভিটামিন এ ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে। এর আগে উপজেলাগুলোতে ব্যাপক প্রচারণা চালানো হবে। এ জন্য একটি নিয়ন্ত্রণ কক্ষও খোলা হয়েছে। প্রতিদিন সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত কন্ট্রোল রুম (ফোন- ০৩১৬৩৪৮৪৩) চালু থাকবে।

এদিকে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. সেলিম আক্তার জানিয়েছেন, একই সময়ে নগরের ৬ থেকে ১১ মাস বয়সী ৮১ হাজার ৫০০ শিশুকে নীল এবং ৪ লাখ ৫২ হাজার ১২ থেকে ৫৯ মাস বয়সী শিশুকে লাল রঙের ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খাওয়াবে চসিক। স্বাস্থ্যবিধি মেনে মোট পাঁচ লাখ ৩৩ হাজার ৫৫২ শিশুকে ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে।

আপনার কমেন্ট এখানে পোস্ট করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here