ঢাকা ডায়নামাইটসকে ১১ রানে হারালো চিটাগাং ভাইকিংস

0
51

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) ষষ্ঠ আসরের ৩৭তম ম্যাচে ঢাকা ডায়নামাইটসকে ১১ রানে হারালো চিটাগাং ভাইকিংস। চট্টগ্রাম পর্বের শেষ দিনের প্রথম ম্যাচে টস জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয় মুশফিকের চিটাগাং। নির্ধারিত ২০ ওভারে পাঁচ উইকেটের বিনিময়ে চিটাগাংয়ের সংগ্রহ ১৭৪ রান। জবাবে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে ১৬৩ রানেই ইনিংস থেমে যায় ঢাকার।

টস জিতে দিনের শুরুতে ব্যাটিংয়ে নেমে চিটাগাংয়ের পক্ষে মাঠে আসা ওপেনার মোহাম্মদ শাহজাদ ১৫ বলে করেন ২১ রান। তিনি ফিরে ফেলেও মাঠে টিকে থাকেন ক্যামরুন ডেলপোর্ট। তিন নম্বরে নামা ইয়াসির আলি করেন ২০ বলে ১৯ রান। এরপর ওপেনার ক্যামরুন ডেলপোর্টের সঙ্গে জুটি গড়েন অধিনায়ক মুশফিক। ৪৬ বলে মুশফিকের সংগ্রহ ৭৯ রান। মুশফিকের পরেই মাঠ ছাড়েন ৭১ রান করা ডেলপোর্ট। টানা তৃতীয় বলে দাসুন শানাকাকেও ফেরান রাসেল। শেষের ওভারে পরপর তিনজনকে ফিরিয়ে হ্যাটট্রিক পূর্ণ করেন এই ক্যারিবীয়ান বোলার। এটি চলতি মৌসুমে তৃতীয় হ্যাটট্রিক। ইনিংস শেষে সিকান্দার রাজা ৬ এবং মোসাদ্দেক হোসেন ১ রানে অপরাজিত থাকেন। এতে করে চিটাগাংয়ের সংগ্রহ দাঁড়ায় পাঁচ উইকেটের বিনিময়ে চিটাগাংয়ের সংগ্রহ ১৭৪ রান।

ঢাকার পক্ষে আন্দ্রে রাসেল তুলে নেন তিনটি উইকেট। এছাড়াও সুনীল নারাইন তুলে নেন দুটি উইকেট।

১৭৫ রানের টার্গেটে মাঠে নেমে শুরুটা একদমই ভালো হয়নি ঢাকার। ওপনার সুনীল নারাইন ০ রানে এবং আরেক ওপেনার মিজানুর রহমান ১১ রানে বিদায় নেন। তিন নম্বরে নামা রনি তালুকদার মাত্র ৬ রানের মাথায় রানআউট হয়ে সাজঘরে ফেরেন। রনি তালুকদারের বিদায়ের পর দলের হাল ধরেন অধিনায়ক সাকিব আল হাসান। এরপর নুরুল হাসান ফেরেন ৩৩ রানে। নুরুল হাসানের পর সাকিবের সাথে মাঠে থাকেন আন্দ্রে রাসেল। তবে ২৩ বলে ৩৯ রান করে বিদায় নেন রাসেল। পরে শুভাগত হোম ৫ রান করেই ফিরে যান। এরপরই সাকিব ফেরেন ইনিংস সর্বোচ্চ ৫৩ রান করে। সাকিবের পর অ্যান্ড্রু বির্চ ৭, মাহমুদুল হাসান ২ রান করেন।

চিটাগাংয়ের পক্ষে আবু জায়েদ রাহি তিনটি, দাসুন শানাকা দুটি, পেসার ক্যামেরুন ডেলপোর্ট ও নাঈম হাসান তুলে নেন একটি করে উইকেট।

আপনার কমেন্ট এখানে পোস্ট করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here