পররাষ্ট্রমন্ত্রীর ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর আচমকা ভারত সফর বাতিল

আচমকাই ভারত সফর বাতিল করে দিলেন বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন। সফর বাতিল করলেন বাংলাদেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খানও। আজই তিন দিনের সফরে নয়াদিল্লি যাওয়ার কথা ছিল পররাষ্ট্রমন্ত্রী একে আব্দুল মোমেনের। কিন্তু, শেষ মুহূর্তে তা বাতিল করা হয়।

শেষ মুহূর্তে এসে কেন পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সফরটি বাতিল হয়েছে, তা নিয়ে তাঁরা কেউ মন্তব্য করতে রাজি হননি। তবে কূটনৈতিক সূত্রগুলো আভাস দিয়েছে, ভারতের নাগরিকত্ব আইন নিয়ে দুই দেশের মধ্যে কিছুটা অস্বস্তি তৈরি হয়েছে। এই আইন নিয়ে এরই মধ্যে ভারতের উত্তর–পূর্বাঞ্চলীয় রাজ্যে সহিংসতা শুরু হয়েছে।

পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সফরটি বাতিলের কারণ নিয়ে জল্পনা যখন তুঙ্গে, তখনই স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীও ভারত সফর স্থগিত করেছেন।

আচমকা ভারত সফর বাতিল করলেন কেন? তার কারণ হিসাবে পররাষ্ট্রমন্ত্রী জানিয়েছেন, ‘‘দিল্লি সফর বাতিল করতে বাধ্য হলাম কারণ আমাকে দেশে বুদ্ধিজীবী দিবস এবং বিজয় দিবসে অংশগ্রহণ করতে হবে। পররাষ্ট্রমন্ত্রীর প্রতিমন্ত্রী এই মুহূর্তে দেশের বাইরে, মাদ্রিদে এবং বিদেশ সচিব হেগে রয়েছেন। তাই চাপ থাকার জন্য আমি সফর বাতিল করলাম।’’

কিন্তু, কূটনৈতিক মহলের একাংশের মতে, সফর বাতিলের কারণ লুকিয়ে রয়েছে অন্য জায়গায়। বুধবার রাজ্যসভায় সিএবি নিয়ে আলোচনায়, বাংলাদেশ, পাকিস্তান ও আফগানিস্তানে সংখ্যালঘুদের উপর অত্যাচারের অভিযোগ তোলেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ।

ওই দিনই তার প্রতিক্রিয়া দিয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রী জানান, এমন অভিযোগ সত্য নয়। ‘‘যিনিই এই তথ্য দিয়ে থাকুন না কেন, এটা সঠিক নয়। বিভিন্ন ধর্মের বহু মানুষই আমাদের দেশের জন্য গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নেন। আমরা কখনই কাউকে ধর্মের ভিত্তিতে দেখি না।’’

একই সঙ্গে, ইতিহাসের কথা টেনে তাৎপর্যপূর্ণ মন্তব্য করে বলেন, ‘‘ভারত ঐতিহাসিক ভাবে সহিষ্ণু দেশ, যে দেশ ধর্ম নিরপেক্ষতায় বিশ্বাস করে। তবে সেই পথ থেকে তারা সরে এলে তাদের অবস্থান দুর্বল হবে। তাই আমরা বিশ্বাস করি, ভারত নিজের দেশে আশঙ্কা তৈরি হওয়ার মতো কিছুই করবে না।

পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সফর বাতিল নিয়ে ভারতের বক্তব্য, এই ঘটনাকে নাগরিকত্ব সংশোধনী বিলের সঙ্গে জুড়ে দেখা উচিত হবে না। ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর মুখপাত্র রবীশ কুমার বলেন, ‘‘আমাদের দু’দেশের সম্পর্ক সুদৃঢ়, যেমনটা দু’দেশের রাষ্ট্রনেতারা বলেছে, বার বার বলেছেন। আমি মনে করি এই সফর বাতিল সেই সম্পর্কে কোনও প্রভাব ফেলবে না।’’ ভারতে ‘ইন্ডিয়ান ওশিয়ান ডায়ালগ’-এ যোগ দেওয়ার কথা ছিল মোমেনের। আগামী ১৪ ডিসেম্বর পর্যন্ত ভারত সফরের সময়সীমা ছিল তার।

মেঘালয়ের মুখ্যমন্ত্রী কনরাড সাংমা আমন্ত্রণে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান আজ শুক্রবার ভারতে যাওয়ার কথা ছিল। কিন্তু তিনিও সফর বাতিল করেছেন।

আপনার কমেন্ট এখানে পোস্ট করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here