রাজাকারদের নির্ভুল তালিকা হলে উপকৃত হবে পরবর্তী প্রজন্ম

মুক্তিযোদ্ধা ও রাজাকারদের নির্ভুল তালিকা করার গুরুত্বারোপ করে আওয়ামী লীগের মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট মৃণাল কান্তি দাস বলেছেন, মুক্তিযোদ্ধার ও রাজাকারদের নির্ভুল তালিকা হলে পরবর্তী প্রজন্ম উপকৃত হবে।

২১তম জাতীয় সম্মেলন সফল করার লক্ষ্যে শনিবার ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার রাজনৈতিক কার্যালয়ে মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক উপ-কমিটির এক আলোচনা সভায় এ কথা বলেন তিনি।

মৃণাল কান্তি দাস বলেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সাত মার্চের ভাষণে উজ্জীবিত হয়ে আমরা মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণ করি। ৯ মাস যুদ্ধ করে দেশ স্বাধীন করেছি। মুক্তিযোদ্ধার ও রাজাকারদের নির্ভুল তালিকা হলে পরবর্তী প্রজন্ম উপকৃত হবে।

মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক উপ-কমিটির চেয়ারম্যান মো. রশীদুল আলম বলেন, সব ষড়যন্ত্র মোকাবেলা করে শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করতে হবে। আওয়ামী লীগ ও স্বাধীনতার স্বপক্ষের শক্তি একই সুতায় গাঁথা।

আওয়ামী লীগের দফতর সম্পাদক আব্দুস সোবহান গোলাপ বলেন, প্রধানমন্ত্রীকে সভাপতি এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রীকে সদস্যসচিব করে আওয়ামী লীগের সম্মেলনের প্রস্তুতি কমিটি গঠন করা হয়েছে। মুজিববর্ষে বিদেশি অতিথি থাকবে বিধায় এবার আওয়ামী লীগের সম্মেলনে বিদেশি অতিথি রাখা হয়নি।

মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক উপ-কমিটির চেয়ারম্যান মো. রশীদুল আলমের সভাপতিত্বে সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক উপ-কমিটির সদস্য হুইপ ইকবালুর রহিম, কাজী কায়কোবাদ, সুশান্ত বাইন, খালেদ খোকন প্রমুখ।

আপনার কমেন্ট এখানে পোস্ট করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here