শাকিবের কাছে ১০ কোটি টাকার ক্ষতিপূরণ চান দিলরুবা খান

0
11

বিনোদন প্রতিবেদক :

শাকিব খান প্রযোজিত ‘পাসওয়ার্ড’ ছবিটি ২০১৯ সালে মুক্তি পায়। এটি বেশ দর্শকপ্রিয়তা অর্জন করে। বিশেষ করে ছবির ‘পাগল মন’ খ্যাত গানটি দারুণ জনপ্রিয়তা পায়।

তবে এই গান নিয়েই এবার বিপাকে পড়লেন ঢালিউডে বর্তমান সময়ের সেরা নায়ক শাকিব খান। শাকিব অভিনীত সেই গানে জনপ্রিয় ‘পাগল মন মনরে মন কেন এত কথা বলে’ গানের অংশ ব্যবহার করায় রোববার (২৮ জুন) ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) সাইবার ইউনিটে চিত্রনায়ক শাকিব খানের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের ২৩ ধারায় অভিযোগ করা হয়েছে।

শুধু শাকিব খানই নয়, অবৈধভাবে অনুমতি ছাড়া গানের অংশ ব্যবহার করায় ও মোবাইল অপারেটর ব্যান্ড রবির বিরুদ্ধেও অভিযোগ আনা হয়েছে।

গানটির শিল্পী দিলরুবা খান, গীতিকার কায়সার আহমেদ ও সুরকার আশরাফ উদাসের পক্ষে আইনজীবী ব্যারিস্টার ওলোরা আফরিন এই অভিযোগ দায়ের করেছেন।

এই প্রসঙ্গে ব্যারিস্টার ওলোরা আফরিন গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন, ‘চিত্রনায়ক শাকিব খান তার ‘পাসওয়ার্ড’ সিনেমায় গানটির পিক দুই লাইন অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করেছেন। যা কপিরাইট করা ছিল। তিনি সিনেমায় ব্যবহার করে সেই কপিরাইট ভঙ্গ করেছেন। এজন্য তার কাছে ১০ কোটি টাকার ক্ষতিপূরণ চেয়ে প্রথমে আইনি নোটিশ পাঠানো হয় চলতি বছরের ফেব্রুয়ারি মাসে।

এই নিয়ে কয়েকবার শাকিব খানের সঙ্গে বৈঠক হলেও ইতিবাচক ফলাফল না আসায় আমরা অভিযোগ দায়ের করেছি। এছাড়া রবিও শাকিবের সিনেমার গানটি বাণিজ্যিকভাবে ব্যবহার করেছে। যার কারণে আমরা রবিকেও অভিযুক্ত করেছি।’

এ ব্যাপারে ‘পাগল মন’ গানের গায়িকা দিলরুবা খান বলেন, ‌‘অনুমতি না দিয়ে কীভাবে শাকিব খান গানটি তার সিনেমার ব্যবহার করলেন! এরপর এই গান তারা ব্যবহার করতে দিয়েছেন বিজ্ঞাপনে! আমি ১০ কোটি টাকার ক্ষতিপূরণ চেয়ে সাইবার ক্রাইমে অভিযোগ করেছি। শাকিব যতো বড়ই নায়ক হোক সে তো এমন অন্যায় করতে পারে না। আমি এর সঠিক বিচার চাই, যাতে করে এভাবে কেউ গান ব্যবহার করার সাহস করতে না পারে।’

তবে এই প্রসঙ্গে মন্তব্য জানতে শাকিব খানের মোবাইল নাম্বারে যোগাযোগ করা হলে তার সাড়া পাওয়া যায়নি।

প্রসঙ্গত, মালেক আফসারি পরিচালিত ‘পাসওয়ার্ড’ সিনেমায় ‘পাগল মন’ শিরোনামে ব্যবহৃত গানে কণ্ঠ দিয়েছেন ভারতের অশোক সিং। এতে পর্দায় ঠোঁট মেলান শাকিব খান।

আপনার কমেন্ট এখানে পোস্ট করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here