সাগরতলে মাছের সঙ্গে ঘুম!

গ্রেট বেরিয়ার রিফে পানির নিচে হোটেল চালু

0
1

সাগরতলে মাছের সঙ্গে ঘুমাতে চাইলে চলে যেতে হবে সুদূর অস্ট্রেলিয়া। প্রশান্ত মহাসাগরের গ্রেট বেরিয়ার রিফের তলদেশে আবাসিক হোটেল গড়ে তুলেছে দেশটির পর্যটক প্রতিষ্ঠান জার্নি বিওয়ান্ড।

রোববার হোটেলটি চালু হয়েছে। দ্য গার্ডিয়ান জানায়, পানির নিচে কাচঘেরা আবাসিক হোটেলে থাকার ব্যবস্থা ইউনেস্কো ঘোষিত ঐহিত্য প্রবাল প্রাচীর গ্রেট বেরিয়ার রিফে এটাই প্রথম।

তিনতলা হোটেলের ওপরের দুই তলা পানির ওপরে হলেও নিচের তলার পুরোটাই পানির নিচে। সেখানে দুটি কক্ষের সঙ্গে আছে শৌচাগারও। হোটেলে যারা থাকবেন, তারা অনুভব করবেন যেন মাছের সঙ্গেই ঘুরছেন, ফিরছেন ও ঘুমাচ্ছেন।

কাচঘেরা ঘর থেকে প্রশান্ত মহাসাগরে মাছ ও জলজ প্রাণী দেখতে পারবেন ঘুমানোর সময়। হার্ডি রিফের ৪০ নটিক্যাল মাইল দূরে অবস্থিত হোটেলটি পাখির চোখে দেখলে মনে হবে যেন একটি বিরাট জাহাজ।

হোটেলটি বানাতে খরচ পড়েছে প্রায় ১ কোটি অস্ট্রেলিয়ান ডলার। এটি তৈরিতে সময় লেগেছে ১৪ মাস। হোটেলটির নিচতলায় বসে প্রবাল, মাছের খেলা আর সুপ্রসন্ন ভাগ্য হলে অক্টোপাসও দেখা যাবে।
পানির নিচের হোটেলকক্ষে এক রাতে থাকার জন্য খরচ পড়বে ৭৯৯ ডলার (বাংলাদেশি মুদ্রায় প্রায় ৬৮ হাজার টাকা)। জার্নি বিওয়ান্ডের নির্বাহী প্রধান লুক ওয়াকার বলেন, ‘অস্ট্রেলিয়ার দীর্ঘদিনের পর্যটক শিল্প এখন এক নতুন মাত্রা পেয়েছে।’

অস্ট্রেলিয়ার অ্যাসোসিয়েটেড প্রেসকে তিনি বলেন, ‘হোটেলটির মাধ্যমে বিশ্ব ঐতিহ্যের প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের কোনো ধরনের ক্ষতি ছাড়াই তা দেখার সুযোগ পাচ্ছেন পর্যটকরা।’

অস্ট্রেলিয়ায় এমন হোটেল প্রথম হলেও পানির নিচে হোটেল ইতিমধ্যে চালু রয়েছে আরব আমিরাতের দুবাই, মালদ্বীপ এবং তানজানিয়ায়।

আপনার কমেন্ট এখানে পোস্ট করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here