সিটি নির্বাচনের তারিখ পেছাতে এবার আপিল বিভাগে আবেদন

সরস্বতী পূজার কারণে ঢাকার দুই সিটি করপোরেশন নির্বাচনে ভোটের তারিখ পরিবর্তনের নির্দেশনা চেয়ে করা রিট খারিজের বিরুদ্ধে সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগে আবেদন করা হয়েছে। আপিল আবেদনে ৩০ জানুয়ারি নির্বাচন স্থগিত চাওয়ার পাশাপাশি ভোটগ্রহণের জন্য নতুন তারিখ নির্ধারণ করতে আর্জি জানানো হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (১৬ জানুয়ারি) আপিল বিভাগের সংশ্লিষ্ট শাখায় আইনজীবী অশোক কুমার ঘোষ এ আপিল আবেদন করেন। এ বিষয়ে আগামী রোববার (১৯ জানুয়ারি) আপিল বিভাগের চেম্বার জজ আদালতে শুনানি হতে পারে বলেও জানিয়েছেন এ আইনজীবী।

এর আগে গত ১৪ জানুয়ারি (মঙ্গলবার) সরস্বতী পূজার কারণে ঢাকার দুই সিটি করপোরেশন নির্বাচনে ভোটের তারিখ পরিবর্তনের নির্দেশনা চেয়ে করা রিট সরাসরি খারিজ করে দেন হাইকোর্ট।

আদালত বলেন, সামনে এসএসসি পরীক্ষা। তাই নির্বাচন পেছানোর সুযোগ নেই। সরকার আগে ২৯ জানুয়ারি সরস্বতী পূজার জন্য সরকারি ছুটির দিন নির্ধারণ করেছেন। তখন রিট পিটিশনারসহ কেউ আপত্তি করেননি।

হাইকোর্টের বিচারপতি জে বি এম হাসান ও বিচারপতি মো. খায়রুল আলমের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ এ আদেশ দেন। আদালতে ওইদিন রিটের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী রানা দাশ গুপ্ত ও আইনজীবী অশোক কুমার ঘোষ। এছাড়া নির্বাচন কমিশনের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী তৌহিদুল ইসলাম।

রিটকারী আইনজীবী অশোক কুমার ঘোষ ওইদিন আদেশের পর বলেন, ‘এ আদেশে আমরা সংক্ষুব্ধ। আমরা আপিল বিভাগে যাব।’ সেই অনুযায়ী আজ (বৃহস্পতিবার) আপিল করা হলো।

আইনজীবী বলেন, ২৯ ও ৩০ জানুয়ারি হিন্দু সম্প্রদায়ের সরস্বতী পূজা অনুষ্ঠিত হবে। এ উপলক্ষে ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে সরস্বতী পূজার আয়োজন করা হবে। কিন্তু ঢাকায় সিটি নির্বাচন উপলক্ষে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ভোটকেন্দ্র স্থাপন করা হবে। এ জন্য সিটি নির্বাচনের পেছানোর জন্য আবেদন করা হয়েছে।

নির্বাচন কমিশনের ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী ৩০ জানুয়ারি (বৃহস্পতিবার) ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। এবার ঢাকার দুই সিটির প্রতিটি কেন্দ্রে ইভিএমের মাধ্যমে ভোটগ্রহণ অনুাষ্ঠত হবে। ওইদিন সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত চলবে ভোটগ্রহণ।

আপনার কমেন্ট এখানে পোস্ট করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here